God new evidence

GOD: new evidence

Contents

‘সবচেয়ে বড় প্রশ্নঃ কেন ঈশ্বর আমাদের জীবনে দুঃখকষ্টকে অনুমোদন করেন?’

আপনি হয়তো ভাবতে পারেন যে পৃথিবীর সমস্ত দুঃখকষ্ট এবং মন্দতা হল কেন আপনি একজন মঙ্গলময় ঈশ্বরকে বিশ্বাস করেন না তার একটি বিশ্বাসযোগ্য কারণ। যারা বিশ্বাস করেন, সেই সমস্ত মানুষের জন্য, কষ্টভোগ এবং মন্দতা অনেক সন্দেহ এবং প্রশ্নও তৈরী করে। এই ধারাবাহিকে, আমরা সেই সমস্ত মানুষের সাথে কথা বলেছি যারা বিভিন্ন ধরণের দুঃখজনক পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন, কিন্তু তারা এখনও তাদের বিশ্বাস ধরে রেখেছেন। আমরা তাদেরকে জিজ্ঞাসা করেছি কিভাবে তাদের জীবন পরিবর্তিত হয়েছে, এবং তারা যখন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন তখন তাদের বিশ্বাস কিভাবে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি পড়েছে?

অংশ ১: ‘যে আমার সন্তানকে হত্যা করেছে আমি তাকে ক্ষমা করেছি’ – রবিনের কাহিনী

আপনি কি এমন কাউকে ক্ষমা করতে পারেন যে আপনার সন্তানকে হত্যা করেছে? রবিন ওয়েক এর সন্তান ষ্টিফেন একটি ‘নিরাপদ বাড়ীতে’ পুলিশের অভিযানের সময় একজন সন্ত্রাসীর দ্বারা নিহত হন। পরবর্তীতে একটি প্রেস কনফারেন্সে, যে তার সন্তানকে হত্যা করেছে সেই সন্ত্রাসীর উদ্দেশ্যে বলেছেন ‘আমি তাকে ক্ষমা করি’। এই ভিডিওতে, রবিন তার কাহিনীটি বলেন। ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন’ অংশ ১: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন?


 

অংশ ২: আমার বিশ্বাসের জন্য জেলে যেতে হয়েছিল – মিরিয়ামের কাহিনী

আপনি কি বিশ্বাস করেন তা আপনার কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ? আপনি কি তার জন্য জেলখানাতে যেতে প্রস্তুত? মিরিয়াম ইরানের একটি মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। যীশু খ্রীষ্টের অনুসারী হয়ে, তার বিশ্বাসের কারণে তাকে জেলে যেতে হয়েছিল। তিনি এই ভিডিওতে তার কাহিনী বলেছেন- আমাদের এই সিরিজের দ্বিতীয় অংশ – সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন?


 

অংশ ৩: হুইলচেয়ারে জীবন – নিক এর কাহিনী

যদি মূহুর্তের মধ্যে আপনার সমস্ত স্বপ্ন ও আশা ধ্বংস হয়ে যায় তাহলে কিভাবে আপনি তা সামলাবেন? একজন কিশোর হিসাবে, নিক বার হ্যামিলটন একজন দক্ষ খেলোয়াড় ছিলেন যতক্ষণ না পর্য্যন্ত খেলার সময় তার মেরুদন্ড ভেঙ্গেছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ে, নিক যীশুর একজন অনুসারী হয়েছিলেন। এখন হুইলচেয়ারে বসেই, তিনি ইউকে-র একটি মন্ডলীর পালক। নিক তার কাহিনী বলেন। ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন’ অংশ ৩: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন?


 

অংশ ৪: Вবেঁচে থাকার জন্য তিন সপ্তাহ – হিলারীর কাহিনী

ত্রিশ বছরের দ্বন্দের কারণে উত্তর আয়ারল্যান্ড পরিচিত হয়েছিল ‘সমস্যাগ্রস্ত’ স্থান হিসাবে, যেখানে তিন হাজারেরও বেশী লোক মারা গিয়েছিল। বেলফাষ্ট থেকে, হিলারী ম্যাকডাওয়েল, সেই সমস্যাগুলির মধ্যে পুর্নমিলনের কাজে সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি একজন আন্তর্জাতিক লেখিকা, বক্তা এবং পরামর্শদাতা। কিন্তু যখন তিনি জন্মেছিলেন, তখন তার বিভিন্ন ধরণের অক্ষমতা ছিল, আর তার বেঁচে থাকার জন্য তিন সপ্তাহ দেয়া হয়েছিল। এই ভিডিও তে হিলারী তার কাহিনী বলেছেন। ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন’ অংশ ৪: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন?


 

অংশ ৫: সীমাহীন ব্যাথা – এরিক এর কাহিনী

কিভাবে আপনি ২০ বছর ধরে চলমান মারাত্মক ব্যথাকে বহন করতে পারেন? এরিক গাউডিওন একজন পেন্টিকস্টাল পরিচর্যাকারী যিনি চ্যানেল আইল্যান্ডের গোয়ার্নসিতে থাকেন। তিনি খুবই মারাত্মকভাবে পেনক্রিয়াটাইটিস রোগে ভুগছেন।, আর বিগত ২০ বছর ধরে, তার সবসময়ই অনেক ব্যথা রয়েছে। তিনি হাসপাতালে একশ’বারেরও বেশীবার যাওয়া আসা করেছেন, আর তার ত্রিশবারের উপর সার্জারী হয়েছিল। এই ভিডিওতে এরিক তার কাহিনী বলেছেন। অংশ ৫ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন : কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন?


 

অংশ ০৬: ক্যান্সারে মারা যাচ্ছে- মাভিসের গল্প

আপনি কিভাবে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার মুখোমুখি হতে পারেন ? লিওনেল এবং মাভিস ক্লার্গো সারা জীবন খ্রীষ্টান প্রচারক হিসেবে কাজ করেছেন। ২০১২ সালে মাভিস ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন। এই ভিডিওতে মাভিস তার গল্পটি বলেছেন। ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন’ অংশ ৬: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন?


 

অংশ ০৭: সম লিঙ্গের প্রতি অনাকাঙ্খিত আকর্ষন- এড-এর গল্প

আপনি সমকামী এটি আবিস্কার করার পর আপনার প্রতিক্রিয়া কি হবে? এড শ ব্রিস্টলের একটি চার্চের পরিচর্যাকারী। তিনিও সমলিঙ্গের প্রতি আকর্ষনগত সমস্যায় ভোগেন। এড হল ‘দ্যা প্লাউজিবিলি প্রব্লেম: দ্যা চার্চ এন্ড সেইম-সেক্স এট্রাক্সন’- এর লেখক। তিনি ‘লিভিং আউট’- এর অবদানকারীও। এই ভিডিওতে, এড তার গল্পটি বলেছেন। অংশ ০৭ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ০৮: কেন আমি?

আমরা কোন না কোনভাবে সকলেই দুঃখকষ্টের ভেতর দিয়ে যেতে পারি, তা আগে হোক বা পরে। অনেকের জন্য, দুঃখকষ্ট ঈশ্বরকে বিশ্বাস না করার জন্য তাদের সবচেয়ে বড় কারন। আমরা সবসময় জানিনা কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন- এটি একটি রহস্য। কিন্তু ঈশ্বর আমাদের চেয়ে অনেক বড় এবং আমরা তার সমস্ত কিছুই বুঝতে পারবনা, ঈশ্বর আমাদের চেয়ে বেশি জানেন এবং তিনি আমাদের চেয়ে জ্ঞানী। এটি কেবলমাত্র ‘অন্ধ বিশ্বাসের’ একটি অজুহাত হতে পারে। কিন্তু তা নয়-দুঃখকষ্টের পরেও ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস স্থাপনের জন্য ভাল কারন রয়েছে। অংশ ০৮ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ০৯: আরো মঙ্গলের জন্য

ঈশ্বর দুঃখকষ্টকে অনুমোদন দেওয়ার একটি কারন হল এমন একটি বৃহত্তর ভাল ফলাফল নিয়ে আসা যা আমরা এখনও দেখতে পাচ্ছিনা- এমন কিছু যা দুঃখকষ্টের চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ। এটি একটি দীর্ঘমেয়াদী ফলাফল হতে পারে। বাইবেল বলে যে, এই জীবনই সমস্ত কিছু নয়- এটি অনেক বড় গল্পের প্রথম পৃষ্ঠা। আজ থেকে দশ হাজার বছর পরে, আমরা যখন এই জীবনের দিকে ফিরে তাকাব, এখানে এবং এখনকার সবচেয়ে ভয়াবহ ঘটনাগুলি খুব ছোট এবং গুরুত্বহীন বলে মনে হবে। যে কেউ ঈশ্বরকে অথবা মৃত্যু পরবর্তী জীবনে বিশ্বাস করে না, তাদের কাছে এটি কেবল ইচ্ছাকৃত চিন্তার মতোই মনে হবে। তবে ঈশ্বর এবং মৃত্যুর পরবর্তী জীবনে বিশ্বাস করার ভাল কারন রয়েছে। বৃহত্তর ভালকে উপলব্ধি করা আমাদের বুঝতে সাহায্য করতে পারে যে ঈশ্বর কেন দুঃখকষ্ট অনুমোদন দেন। অংশ ০৯ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১০: আমাদের পছন্দগুলি

ঈশ্বর আমাদের নৈতিক পছন্দ করার ক্ষমতা দিয়েছেন। আমাদের মধ্যে বেশির ভাগই বলবেন যে বাছাই করতে সক্ষম হওয়া একটি গুরুত্বপূর্ণ ভাল বিষয়। সমস্যাটি হল আমরা প্রায়শই মন্দ কাজ করতে এবং ঈশ্বরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করাটা বেছে নিয়েছি। (বাইবেল এটিকে ‘পাপ’ বলে অভিহিত করে) এবং পৃথিবীতে বেশিরভাগ দুঃখকষ্ট মানুষের ভুল বাছাইয়ের ফল- আমাদের সিদ্ধান্তই একে অপরকে আঘাত ও ক্ষতি করে। অংশ ১০ সবচেয়ে বড় প্রশ্ন : কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১১: ঈশ্বর এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ

কেন ঈশ্বর বন্যা, ভূমিকম্প, আগ্নেয়গিরি এবং সুনামির মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে সৃষ্ট সমস্ত দুঃখকষ্টকে অনুমোদন দেন? বব হোয়াইট কেম্ব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওফিজিক্সের অধ্যাপক এবং লেখক ‘কে দোষী? বিপর্যয়, প্রকৃতি এবং ঈশ্বরের নিয়ম’। তিনি আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরনের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিয়ে গবেষনা করেন। এই ভিডিওতে বব হোয়াইট যুক্তি দিয়েছেন যে প্রাকৃতিক দুর্যোগের সৃষ্ট দুঃখকষ্ট আমাদের নিজস্ব স্বার্থপরতা, লোভ, দুর্নীতি বা আলস্যের ফলস্বরুপ। অংশ ১১ সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১২: ঈশ্বরের সতর্কবার্তা

প্রাকৃতিক দুর্যোগের সৃষ্ট বেশিরভাগ দুঃখকষ্টই আমাদের নিজস্ব স্বার্থপরতা, লোভ, দুর্নীতি বা আলস্যের ফলস্বরুপ। কিন্তু এগুলোই সব নয়। কেন একজন উত্তম ঈশ্বর আমাদের দুঃখকষ্ট অনুমোদন দেন যার কারন আমরা না? দুঃখকষ্ট হল ঈশ্বরের কাছ থেকে আসা একটি সতর্কতা এবং সতর্কবার্তা হতে পারে যে আমাদের তার সঙ্গে সঠিকভাবে সম্পর্ক স্থাপন করা দরকার। ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্নঃ ঈশ্বর কেন দুঃখকষ্ট অনুমোদন দিয়েছেন?’ কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যাল্যের জিওফিজিক্সের অধ্যাপক এবং ‘কে দোষী’ এর লেখক নিক বার-হ্যামিল্টন এবং বব হোয়াইটের সাথে? বিপর্যয়, প্রকৃতি এবং ঈশ্বেরর আইন।


 

অংশ ১৩: একজন কষ্টভোগের ঈশ্বর

ঈশ্বর আমাদের দুঃখকষ্টের সময় কেবল দূর থেকে দেখেন না! যীশু খ্রীষ্টে,, ঈশ্বর আমাদের একজন হয়েছেন, এবং আমরা যত ব্যথা এবং দুঃখকষ্টের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি তা অনুভব করেন। তিনি জানেন যে এট কেমন। কিন্তু বাইবেল অনুসারে, যীশু যখন ক্রূশে মারা গিয়েছিলেন, তিনি কেবল আমাদের সাথেই কষ্ট পাচ্ছিলেন না; তিনি আমাদের জন্য কষ্ট পেয়েছিলেন। যীশুতে, ঈশ্বর আমাদের সেই রায়টি গ্রহণ করেছিলেন। যীশু আমাদের ভুল পছন্দ এবং ঈশ্বরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের জন্য মূল্য দিয়েছিলেন এবং আমাদের পক্ষে ঈশ্বরের সাথে পুনর্মিলন করাকে সম্ভব করেছিলেন। অংশ ১৩ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন : কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১৪: একটি ভিন্ন উদ্দেশ্য

যীশু খ্রীষ্টকে বিশ্বাস করার ফলস্বরূপ যদি আমরা ঈশ্বরের লোক হয়ে থাকি, তাহলে ঈশ্বর আমাদের জীবনে দুঃখকষ্ট অনুমোদন দেওয়ার একটি কারন হল আমাদের জন্য তার উদ্দেশ্য আমাদের নিজস্ব উদ্দেশ্যের চেয়ে ভিন্ন। আমরা এখানে প্রায়শই সুখী ও সুস্থ থাকতে চাই; ঈশ্বর তাকে আমাদের জানার জন্য এবং তার সাথে চিরকাল বেঁচে থাকার জন্য সৃষ্টি করেছেন। দীর্ঘমেয়াদে, এভাবেই আমরা একমাত্র খুশি হব। অন্য যে কোন কিছুই হতাশা এবং হতাশার দিকে পরিচালিত করবে। তবে আমরা যদি ঈশ্বরের সাথে এই ধরনের সম্পর্কের ক্ষেত্রে চিরকাল বেঁচে থাকি তবে আমাদের এমন লোক হওয়া দরকার যারা চিরকাল তাঁর সাথে থাকাটা উপভোগ করবে। বাইবেল এটিকে বর্ণনা করে যে আমাদের জন্য ঈশ্বরের উদ্দেশ্য হল তাঁর পুত্র যীশুর মত হওয়া।আর তা সম্ভব হয়ে ওঠে দুঃখকষ্টের মধ্য দিয়েই। অংশ ১৪ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন : কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১৫: আমাদের পছন্দটা গুরুত্বপূর্ণ

যীশু খ্রীষ্টকে বিশ্বাস করার ফলস্বরূপ আমরা যদি ঈশ্বরের লোক হয়ে উঠি তবে ঈশ্বর আমাদেরকে তাঁর পুত্রের মত করে তোলার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। তিনি যেভাবে এটি করেন তা হল দুঃখকষ্ট অনুমোদন করা। কিন্তু যীশুর মতো হওয়া এত সহজ নয়, এবং তা সয়ংক্রিয় ভাবে ঘটে না। ঈশ্বর আমাদের জীবনে যে দুঃখকষ্ট অনুমোদন দেন তার প্রতি আমরা কীভাবে প্রতিক্রিয়া জানাতে পারি তা আমরা বেছে নিতে পারি। এবং আমরা যেভাবে প্রতিক্রিয়া জানাই তা সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ – আমাদের পছন্দগুলি গুরুত্বপূর্ণ। অংশ ১৫ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন : কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১৬: ঈশ্বরের প্রতি সন্দেহ

এই ধারাবাহিক ভিডিওগুলিতে আমরা এমন লোকদের সাথে কথা বলেছি যারা তাদের বিশ্বাসের জন্য ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন, যারা প্রিয়জন হারিয়েছেন এবং যারা অসুস্থতা এবং মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েছেন। যা ঘটেছিল তা কি তাদের সন্দেহ বা অবিশ্বাসী করেছে যে ঈশ্বর আছে? অংশ ১৬ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১৭: ঈশ্বরকে সন্দেহ করা ভাল

এই ধারাবাহিক ভিডিওগুলিতে আমরা এমন লোকদের সাথে কথা বলেছি যারা তাদের বিশ্বাসের জন্য নিপীড়ন সহ্য করেছে, একাধিক অক্ষমতা, বড় অসুস্থতার মুখোমুখি হয়েছে এবং যারা শোকাহত হয়েছেন। যা ঘটেছিল তা কি তাদের সন্দেহ করিয়েছে যে ঈশ্বর ভাল? তারা কি কখনও ঈশ্বরের প্রতি রাগান্বিত হয়েছেন বা তারা যা করেছে তার জন্য ঈশ্বরকে দোষ দিয়েছেন? অংশ ১৭ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১৮: খারাপ থেকে ভাল

এই ধারাবাহিক ভিডিওগুলোতে আমরা এমন লোকদের সাথে কথা বলেছি যারা পরিবারের ঘনিষ্ঠ সদস্যদের হারিয়েছেন, বড় ধরনের সসুন্থতা ও একাধিক অক্ষমতা ভোগ করেছেন এবং যারা তাদের বিশ্বাসের জন্য নির্যাতিত হয়েছেন। তবে তাদের সাথে যা কিছু ঘটেছে তা সত্ত্বেও, তারা ঈশ্বর তাদের দুঃখকষ্টগুলি থেকে কিভাবে ভালকিছু এনেছেন তা নির্দেশ করতে করেছেন। অংশ ১৮ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ১৯: কি আপনাকে পরিচালিত করে ?

এই ধারাবাহিক ভিডিওগুলিতে আমরা এমন লোকদের কাছ থেকে শুনেছি যারা অক্ষমতা, পঙ্গুতের ব্যথা, তাড়না এবং শোকের শিকার হয়েছেন। কেন একজন ভাল এবং প্রেমময় ঈশ্বর মানুষকে দুঃখকষ্ট দিতে দেবেন তা আমরা অনুসন্ধান করেছি। এই পর্বে আমরা আমাদের অবদানকারীদের একটি ভিন্ন ধরনের প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করি: কি তাদেরকে পরিচালিত করে? কী তাদের সচল থাকতে সক্ষম করে? অংশ ১৯ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?


 

অংশ ২০: সবচেয়ে কঠিন পছন্দ

এই ধারাবাহিকের শেষ ভিডিওটিতে আমরা জিজ্ঞাসা করেছিলাম, কেন একজন ভাল ঈশ্বর নিরীহ শিশুদের দুঃখকষ্ট দেন? শিশুদের দুঃখকষ্ট আমাদের কাছে সবচেয়ে কঠিনতম প্রশ্নগুলোর একটি হতে পারে যার সম্মুখীন আমরা এর আগে হইনি । এটি আমাদের একটি পছন্দ দেয়- আমরা বুঝতে না পারলেও আমরা ঈশ্বরের মঙ্গল ও ভালাবাসাকে বিশ্বাস করতে বা না করতে পারি তা বেছে নিতে পারি। এটি ‘অন্ধ বিশ্বাস’ নয়- আমাদের ঈশ্বরের বাস্তবতা, ভালবাসা এবং শক্তিতে বিশ্বাস করার ভাল কারন রয়েছে। অংশ ২০ ‘সবচেয়ে বড় প্রশ্ন: কেন ঈশ্বর দুঃখকষ্ট অনুমোদন করেন’?

 

only search
'God: new evidence'

Site map


If you have a question chat now


Want to find out if God is real, and to connect with him?
Try Praying

Or get the app:


Keep in touch:

Facebook Facebook
TwitterTwitter

Interesting sites

Bethinking

Centre for Christianity in Society

Christian Evidence Society

Christians in Science

Professor Robin Collins

William Lane Craig - Reasonable Faith

The Demolition Squad

Professor Gary Habermas

Professor John Lennox

Reboot

Mike Licona - Risen Jesus

Saints and Sceptics

Solas

Test of Faith

Peter S Williams

‘The impression of design is overwhelming.’ – Professor Paul Davies